Skip to main content
 

আমাদের কথা

দিনাজপুর জেলার বিচার বিভাগের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

দিনাজপুর বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রংপুর বিভাগের একটি অন্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃহৎ জেলা। এটি বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের জেলাগুলোর মধ্যে একটি এবং উত্তরবঙ্গের ১৬টি জেলার মধ্যে অন্যতম। দিনাজপুর জেলা গঠিত হয় ১৭৮৬ সালে। এই জেলার পূর্ব নাম ছিল ঘোড়াঘাট। ১৮৩৩-১৮৭০ সালে দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন অংশ পূর্ণিয়া, রংপুর ও রাজশাহীর অন্তর্ভূক্ত হয়। দিনাজপুরের দুটি মহকুমা ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় ১৯৮৪ সালে পৃথক জেলায় পরিনত হয়। জেলাটির চারদিকে রয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, রংপুর, নীলফামারী, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড়। এই জেলার আয়তন ৩৪৩৭.৯৮ বর্গ কিলোমিটার। অবস্থান  ২৫° ১০' থেকে ২৬° ০৪´ উত্তর অক্ষাংশে এবং ৮৮° ২৩' থেকে ৮৯° ১৮´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশে। দিনাজপুর জেলার উত্তরে- ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় জেলা, দক্ষিণে গাইবান্ধা ও জয়পুরহাট জেলা, পূর্বে- নীলফামারী ও রংপুর জেলা, পশ্চিমে- ভারতের পশ্চিমবঙ্গ। ২০২২ সালের জনশুমারী অনুযায়ী দিনাজপুর জেলার  জনসংখ্যা- ৩৩,১৫,২৩৫ পুরুষ- ১৬,৬০,৯৯৭, মহিলা- ১৬,৫৩,৩০৫। এ জেলায় সাঁওতাল, ওরাওঁ, মাহলী, মালপাহাড়ী, কোল প্রভৃতি আদিবাসী জনগোষ্ঠীর বসবাস রয়েছে। জেলার ১৩ টি উপজেলার মধ্যে বীরগঞ্জ উপজেলা সর্ববৃহৎ (৪১৩ বর্গ কিমি) এবং এটি জেলার মোট আয়তনের ১২.০১% এলাকা জুড়ে অবস্থিত। জেলার সবচেয়ে ছোট উপজেলা হাকিমপুর (৯৯.৯২ বর্গ কিমি)। ১৭৮৬ খ্রিস্টাব্দে দিনাজপুর জেলায় ব্রিটিশদের প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠিত হয়। অবিভক্ত বাংলার সবচেয়ে বড় প্রশাসনিক জেলা ছিল দিনাজপুর।

১৭৬৫ সালে ইংরেজরা (ব্রিটিশ) বাংলার দেওয়ানী লাভ করলে ১৭৭২ সালে একজন ইংরেজকে জেলা কালেক্টর ও রাজস্ব বিভাগের প্রধান হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। এই অঞ্চলে তখন আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটেছিল। ১৭৮৬ সালে মিঃ ম্যারিয়ট (Mr. Marriott) দিনাজপুর জেলার কালেক্টর হন। তারপর মিঃ রেড ফার্ন (Mr. Red Fern) এবং মিঃ ভ্যান সিটার্ট (Mr. Van Sittart) স্বল্প সময়ের জন্য কালেক্টর ছিলেন। পরবর্তী কালেক্টর এইচ জি হ্যাচ (G. Hatch)  বিচারিক ক্ষমতা প্রয়োগ শুরু করেন। জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের এলাকা তখন দিনাজপুর, মালদা এবং বগুড়া পর্যন্ত সম্প্রসারিত হয়। ১৭৮৬ খ্রিস্টাব্দের ডিসেম্বর মাসে দিনাজপুর জেলার প্রথম কালেক্টর এইচ জি হ্যাচ (G. Hatch) কে দেওয়ানী আদালতের জজ হিসাবেও নিয়োগ করা হয় এবং ঐ সময় থেকে তার বিচারিক ক্ষমতা দিনাজপুর জেলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিলো। ১৭৮৬ খ্রিস্টাব্দের ১লা ফেব্রুয়ারী তিনি এ কাজের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। ১৭৮৬ খ্রিস্টাব্দে এ জেলার সীমানা পুনঃনির্ধারণ করা হয় এবং এইচ জি হ্যাচ (G. Hatch) পুনরায় জজ, ম্যাজিস্ট্রেট ও কালেক্টর নিয়োগ করা হয়। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর দিনাজপুরের প্রথম জেলা ও দায়রা জজ ছিলেন জনাব আব্দুল হান্নান চৌধুরী। পহেলা নভেম্বর ২০০৭ খ্রিস্টাব্দে নির্বাহী বিভাগ হতে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসি আলাদা হলে সারাদেশের ন্যায় দিনাজপুরেও চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রতিষ্ঠিত হয়, যা দিনাজপুর জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গনে অবস্থিত। দিনাজপুর জেলার প্রথম চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ছিলেন জনাব মোঃ জাহিদুল ইসলাম।

জেলা ও দায়রা জজ আদালত, দিনাজপুর-এর প্রতিষ্ঠাকাল- ১৭৮৬ খ্রিস্টাব্দ। প্রথম জেলা ও দায়রা জজ মিঃ জি হ্যাচ ( G. Hatch)। দিনাজপুরের বর্তমান জেলা ও দায়রা জজ আদালত ভবন কোতোয়ালী থানাধীন মৌজা- প্রাণনাথপুর, জেএলনং-৬৩, খাস খতিয়ান নং-২, এস. এ. দাগ নং ৭০৪৮- তে মোট ৮.৪২ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত। এর পশ্চিম দিকে কাচারী রোড, পূর্বদিকে- জেলা পরিষদ, উত্তর দিকে- দিনাজপুর জেলা স্কুল এবং দক্ষিণ দিকে- দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়। দিনাজপুর জেলার বিচার বিভাগের প্রধান- বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ, দিনাজপুর। বর্তমানে দিনাজপুরে ১ টি জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ৪ টি অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ৩ টি যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ১৩ টি সহকারী জজ ও সিনিয়র সহকারী জজ আদালত, ১ টি চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, ১ টি অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, ৫ টি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, ৬ টি জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, ১ টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, ১ টি বিশেষ জজ আদালত ও ১ টি বিদ্যুৎ আদালত এবং জেলা লিগ্যাল এইড অফিস নিয়ে দিনাজপুর বিচার বিভাগ গঠিত। এছাড়াও একই ক্যাম্পাসে দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি ও জেলা রেজিস্ট্রি অফিস অবস্থিত।

         ঐতিহ্যবাহী দিনাজপুর জেলার বিচার বিভাগ অধিকার বঞ্চিত, ক্ষতিগ্রস্থ ও অন্যায়ের শিকার বিচারপ্রার্থী জনগণকে দ্রুততম সময়ে ন্যায়বিচার ও যথাযথ প্রতিকার প্রদান করে আসছে। বিচারপ্রার্থী জনগণের শেষ ভরসা ও আশ্রয়স্থল হিসাবে দিনাজপুর বিচার বিভাগ ন্যায়বিচার নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে সমাজের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষা ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করছে। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও  গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহান সংবিধানের চেতনার আলোকে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা/নিশ্চিতকরণে দিনাজপুর জেলার বিচার বিভাগ বদ্ধ পরিকর।

                                                                          মানচিত্র

                               

.